Hi, Guest! Login Register

উইন্ডোজের ১০ টি প্রয়োজনীয় রান কমান্ড জেনে নিন

Homeকম্পিউটার টিপসউইন্ডোজের ১০ টি প্রয়োজনীয় রান কমান্ড জেনে নিন

রিয়াদবিডিতে আমার আরেকটি আর্টিকেলে আপনাকে জানাই স্বাগতম। আপনি যদি উইন্ডোজ ইউজার হন তাহলে অবশ্যই উইন্ডোজের রান কমান্ডের সাথে পরিচিত। যদি পরিচিত না হন তাহলে শুনুন: রান কমান্ড এমন একটি সিস্টেম যেখানে আপনার কম্পিউটার আপনার কমান্ড অনুযায়ী আপনার কম্পিউটারে থাকা সফট ওয়্যার অথবা প্রোগ্রাম রান করে। তো বন্ধুরা আজকের এই আর্টিকেলে আমি ১০ টি প্রয়োজনিয় উইন্ডোজ রান কমান্ড নিয়ে আলোচনা করব।

রান কমান্ড কিভাবে ইউজ করতে হয়?

রান কমান্ড ইউজ করার জন্য প্রথমে ‘Windows+R‘ চাপুন তাহলে নিচের মতো একটি উইন্ডো আসবে।

এই উইন্ডোতে কমান্ড লেখার জন্য একটি বক্স পাবেন। এই বক্সেই আপনাকে কমান্ড লিখে ‘OK‘ এ ক্লিক করতে হবে অথবা এন্টার প্রেস করতে হবে, তাহলেই আপনার কমান্ড করা প্রোগ্রাম রান হবে। তো নিচে ১০ টি প্রয়োজনিয় উইন্ডোজ রান কমান্ড জেনে নিন।

10 important run comands for windows

1. “”

এই কমান্ডটি আপনার কম্পিউটারের সি ড্রাইভ ওপেন করবে। তাই এখন থেকে আপনার কম্পিউটারের সি ড্রাইভ অ্যাক্সেস করার প্রয়োজন হলে জাস্ট ‘Windows+R’ চেপে রান কমান্ড ওপেন করে সেখানে “” লিখে এন্টার প্রেস করুণ।

2. “.”

এই কমান্ডটি আপনার কম্পিউটারের হোম ফোল্ডার ওপেন করবে। তাই দ্রুত কম্পিউটারের হোম ফোল্ডার ওপেন করতে চাইলে “.” এই কমান্ড ইউজ করুণ।

3.”Calc”

আপনার ক্যালকুলেটর ওপেন করার প্রয়োজন! তাহলে এই কমান্ডটি ইউজ করুণ। এই কমান্ড ইউজ করে দ্রুত ক্যালকুলেটর ওপেন করতে সক্ষম হবেন।

4. “notepad”

এই মূহুর্তে আপনার কিছু নোট করতে হবে! ব্যাস্ আর কি রান বক্সে “notepad” টাইপ করে এন্টার প্রেস করুণ।

5. “CMD”

আপনি উইন্ডোজ ইউজার হলে অবশ্যই ‘CMD‘ এর সাথে পরিচিত। রেগুলার উইন্ডোজও ইউজার হলে তো পরিচিত থাকারই কথা। তো সিএমডি (CMD) ওপেন করতে চাইলে রান বক্সে “CMD” টাইপ করে এন্টার প্রেস করুণ।

6. “mrt”

এই কমান্ডটি উইন্ডোজের ম্যালেসিয়াস সফটওয়্যার রিমুভাল টুল ওপেন করবে। হ্যাঁ, এই টুলটি আপনাকে কিছু পরিচিত ম্যালেসিয়াস সফটওয়্যার ক্লিয়ার করতে হেল্প করবে।

7. “ncpa.cpl”

আপনি যদি আপনার উইন্ডোজ কম্পিউটারে মাল্টিপল নেটওয়ার্ক এ্যাডেপ্টার ইউজ করেন তাহলে তো নিশ্চয় মাঝে মধ্যেই নেটওয়ার্ক প্রব্লেম এর মধ্যে পরে থাকেন। ওয়েল, এই কমান্ডটি নেটওয়ার্ক কানেকশন সেটিংস ওপেন করবে যেখানে আপনি সবগুলো নেটওয়ার্ক এ্যাডেপ্টার এ্যাকসেস করতে পারবেন।

8. “netplwiz”

আপনার যদি উইন্ডোজে অ্যাডভান্স ইউজার একাউন্ট সেটিংস ওপেন করার প্রয়োজন হয় তাহলে এই কমান্ডটি ইউজ করতে পারেন। অন্য ভাবে অ্যাডভান্স ইউজার একাউন্ট সেটিংস ওপেন করতে হলে আপনাকে কন্ট্রোল প্যানেলে যেতে হবে যেটা এর তুলনায় অনেক লম্বা প্রসেস।

9. “perfmon.msc”

এই কমান্ডটি পারফরমেন্স কমান্ড নামে পরিচিত। আপনাকে যদি আপনার কম্পিউটারের পারফরমেন্স পর্যবেক্ষন করার প্রয়োজন হয় তাহলে এই কমান্ডটি ইউজ করতে পারেন। জাস্ট রান কমান্ড বক্সে গিয়ে “perfmon.msc” টাইপ করে এন্টার প্রেস করুণ।

10. “Powershell”

পাওয়ারশেল হলো মাইক্রোসফট থেকে টাস্ক অটোমেশন এবং কনফিগারেশন করার জন্য একটি ফ্রেমওয়ার্ক। এটার অনেকটা CMD এর সাথে মিল রয়েছে। জাস্ট রান কমান্ড বক্সে গিয়ে “Powershell” টাইপ করে এন্টার প্রেস করুণ।

আজকের মতো এই পর্যন্তই, আগামিতে দেখা হবে অন্য কোনো আর্টিকেলে। সবশেষে বলবো এই আর্টিকেলটি যদি আপনার ভাল লাগে তাহলে আমার ব্লোগার সাইট

ভিজিট করার অনুরোধ রইলো, ধন্যবাদ

Share this post on Social Network:
Google+ Pinterest

About Author

Total Posts [127]

› Total Post: [127]
› This author may not interusted to share anything with others

Leave a Reply

You Must be Login or Register to Submit Comment.

Developed by Helim Hasan Akash | Copyright 2010-2020 ReadBD24.Com